ধামরাই ভাড়ারিয়া ইউপি নির্বাচনে সম্ভাব্য চেয়ারম্যান প্রার্থী মাসুদের গণসংযোগ


নিজস্ব প্রতিবেদকঃ ঢাকার ধামরাইয়ের ১১ নং ভাড়ারিয়া ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগের প্রার্থী হতে চান ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান ও সাভার থানা আওয়ামী লীগের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি প্রয়াত আহসান হাবীবের একমাত্র উত্তসূরী তারুন্যদীপ্ত কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগ নেতা মাসুদ হাবীব। মুজিব শত বার্ষিকী উপলক্ষ্যে ভাড়ারিয়া জামাল উদ্দিন উচ্চ বিদ্যালয়ে স্থানীয় আওয়ামী লীগ আয়োজিত যৌথ মত বিনিময় সভায় যোগ দিয়ে দলের নীতি-নির্ধারনী ফোরামে চেয়ারম্যান প্রার্থী হিসেবে দলীয় মনোনয়ন পেতে নিজের প্রার্থীতার কথা ঘোষনা করেন মাসুদ হাবীব। এর আগে আওয়ামী লীগ নেতৃবৃন্দসহ শত শত কর্মী-সমর্থক নিয়ে মত বিনিময় সভায় যোগ দেন উদীয়মান জননেতা চেয়ারম্যান প্রার্থী মাসুদ হাবীব। অন্যান্য প্রতিদ্বন্দি প্রার্থীরাও এসময় অনুষ্ঠানে যোগ দিয়ে নিজেদের প্রার্থীতার কথা ঘোষনা করেন।মত বিনিময় সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ঢাকা-২০ সংসদীয় আসনের সাংসদ ঢাকা জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আলহাজ্ব বেনজির আহমেদ। দলীয় মনোনয়ন পেতে আওয়ামী লীগের প্রতিদ্বন্দি প্রার্থীরা এসময় ইউনিয়নের বর্তমান চেয়ারম্যানের বিষদাগার করে বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ার স্বপ্ন নিয়ে ্উন্নয়নের মহাসড়কে দেশ, সমাজের প্রতিটি ক্ষেত্রে যখন উন্নয়নের জোয়ার বইছে সেখানে চেয়ারম্যানের একক স্বেচ্ছাচারিতা ও অনিয়ম-দূর্ণীতির কারনে নাগরিক সুযোগ-সুবিধা থেকে বঞ্চিত এ ইউনিয়নের সাধারন মানুষ। উন্নয়নের ধারাবাহিকতায় নিজেদের সম্পৃক্ততায় নতুন ও তরুন নেতৃত্বের প্রতি গুরুত্বারোপ করেন ্প্রতিদ্বন্দি প্রার্থীরা। প্রতিদ্বন্দি প্রার্থীদের মতামতের প্রতি সহমত প্রকাশ করেন দলীয় নেতৃবৃন্দ।আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় নেতা মাসুদ হাবীব এসময় নিজেদের পিতা প্রয়াত আহসান হাবীবের অসামান্য অবদানের কথা তুলে ধরে বলেন, একটা সময় ছিল যখন এ অঞ্চলে আওয়ামী লীগের নাম নেয়ার মতো লোক খুজে পাওয়া যেত না, বিএনপি-জামাতের সন্ত্রাসীদের ভয়ে রাজপথে নামতে ভয় পেত, সেসময় সকলের রক্ত চক্ষুকে উপেক্ষা করে আমার পিতা আহসান হাবীব আওয়ামী লীগের ভীত গড়েছেন। ঐকবদ্ধ করেছেন আওয়ামী লীগের নেতা-কর্মীদের। সহযোগীতার হাত বাড়িয়ে দিয়ে পাশে দাড়িয়েছেন সকলের। সাভারে আওয়ামী লীগের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি ছিলেন তিনি। ভাড়ারিয়া ইউনিয়ন পরিষদের দুই বারের সফল চেয়ারম্যান ছিলেন তিনি। তার অসমাপ্ত কাজ সম্পন্ন করতেই তিনি এবারের নির্বাচনে দলীয় মনোনয়ন নিয়ে নির্বাচনে অংশগ্রহন করতে চান তিনি। এছাড়াও সামজ থেকে মাদক ও সন্ত্রাস নির্মূলে নিজের জিরো টলারেন্স নীতির কথা উল্লেখ করে বলেন,একটি আধুনিক ও উন্নত ইউনিয়ন পরিষদ হিসেবে সবাইকে সাথে নিয়ে ভাড়ারিয়া ইউনিয়নকে গড়ে তুলতে কাজ করারও অঙ্গীকার করেন তিনি।প্রধান অতিথি’র বক্তব্যে আলহাজ্ব বেনজির আহমেদ বলেন, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ একটি বৃহত্তর সংগঠন। এত বড় একটি দলের একাধিক চেয়ারম্যান প্রার্থী থাকবে এটাই স্বাভাবিক। তবে অতীত কর্মকান্ড ও দলের প্রতি আনুগত্যের উপর ভিত্তি করেই দলীয় প্রার্থী নির্বাচন করা হবে। দল মনোনীত প্রার্থীকে ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে বিজয়ী করতে সবাইকে ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করার জন্যও আহ্বান জানান তিনি।ধামরাই উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সাখওয়াত হোসেন সাকু, পৌর মেয়র গোলাম কবীর, মানবাধিকার সংগঠনের সভাপতি আইয়ুব আহমেদ, ভাড়ারিয়া ইউনিয়নের ৬নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি আব্দুল ভাসানী, ৫ নং ওয়ার্ডের সাধারন সম্পাদক শরীফ খান, ৯নং ওয়ার্ডের সহ-সভাপতি আলতাফ হোসেনসহ আরও অনেকে এসময় উৃপস্থিত ছিলেন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *