সিংগাইরের ফোর্ডনগরে চাঁদার দাবীতে ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে হামলা, শামীমের বিরুদ্ধে চাঁদাবাজীর মামলা দায়ের

নিজস্ব প্রতিবেদক: মানিকগঞ্জের সিংগাইর উপলাজেলার ফোর্ডনগরে একটি ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে চাঁদার দাবীতে হামলা চালিয়ে ভাংচুর ও লুটপাট চালিয়েছে স্থানীয় বহুমামলার আসামী ভূমিদস্যু ইকবাল হোসেন শামীম ও তার বাহিনী। এ ঘটনায় শামীমসহ ৬ জনকে আসামী করে সিংগাইর থানায় মামলা দায়ের করেছে ভূক্তভোগী। এ ঘটনায় মামলা দায়েরের পর থেকে সন্ত্রাসীরা বাদী ও তার পরিবারকে মৃত্যুর হুমকি দিয়ে যাচ্ছে বলে অভিযোগ পাওয়া যায়।

মামলার এজাহার সূত্রে জানাগেছে, ফোর্ডনগর আদর্শ গ্রামের বাজারের একটি হোটেল মালিকের নিকট দির্ দিন যাবত পাঁচ লক্ষ টাকা চাঁদা দাবী করে আসছিল। চাঁদার টাকা না পেয়ে গত শুক্রবার (১৫ নভেম্বর) সন্ধ্যায় শামীমসহ ৮/১০ জনের সন্ত্রাসী বাহিনী লাঠিসোটা ও ধারালো অস্ত্র নিয়ে হোটেলে হামলা চালিয়ে ব্যাপক ভাংচুর চালায়। এসময় তারা চাঁদার টাকা দ্রুত দেয়ার কথা বলে চলে যায়।

পরে ভুক্তভোগী হোটেল মালিক নাজির খান বাদী হয়ে সিংগােইর থানায় অভিযোগ দায়ের করলে ঘটনাস্থলে পুলিশ এসে ঘটনার সত্যত্য পায়। বাদীর অভিযোগ আমলে নিয়ে শনিবার (১৬ নভেম্বর) শামীমসহ ৬ জনের বিরুদ্ধে মামলা (নং-১৮/১৬-১১-১৯) দায়ের করা হয়।

১৪৩/৪৪৭/৪৪৮/৩৮৫/৪২৭/৫০৬ (২) ধারায় মামলা দায়েরের পর থেকে আসামী শামীম ও সন্ত্রাসী বাহিনীর সদস্য শ্যামল, রনি, মোশারফ, আরিফ ও মোবারক পলাতক রয়েছে বলে জানাগেছে।

স্থানীয়রা অভিযোগ করেন, শামীম এলাকায় সন্ত্রাসী রাজস্ব কায়েম করায় তার বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করার সাহস পায়না। প্রতিবাদ করলে রাতের আধাঁরে বাড়ীতে হামলা করে মারধর করাসহ নানা হয়রানী করে।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একাধিক গ্রামবাসী অভিযোগ করেন, এলাকায় সরকারী জমি দখল করা সহ সাধারন মানুষের জমি জোর পূর্বক সাইন লাগিয়ে দখল করে নেয়। সন্ত্রাসী শামীমের বিরুদ্ধে ২০/২৫টিরও অধিক মামলা রয়েছে। ভূমি দস্যুতাই তার প্রধান ব্যবসা। জমি দখলে কেউ বাধা দিলে বিভিন্ন ভাবে হয়রানী করে বলে অভিযোগ করেন তারা।

ভূমিদস্যু শামীমের জবর দখল থেকে সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের জমিও বাদ যায়নি। স্থানীয় সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রায় ৭৩ শতাংশ জমি জবর দখল করে সেখানে প্রায় ৪০ টিরও বেশি পরিবারের নিকট ৩ শতাংশ, সাড়ে তিন শতাংশ প্লট আকারে বিক্রি করে হাতিয়ে নিয়েছে কোটি টাকা।

এ বিষয়ে সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল ওহাব খান অভিযোগ করেন সরকারী স্কুলের ছাত্র-ছাত্রীদের খেলার মাঠ এই শামীম রাতের আধারে দখল করে নিয়ে প্লট আকারে বিক্রি করে দিয়েছে। এ বিষয়ে বিভিন্ন দপ্তরে অভিযোগ করেও কোন প্রতাকার পাননি এলাকাবাসী।

এ বিষয়ে সিংগাইর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আব্দুস সাত্তার বলেন, শামীমের বিরুদ্ধে মামলা দয়ের হয়েছে। সে এলাকার চিহ্নিত সন্ত্রাসী। তাকে গ্রেফতারে পুলিশের অভিযান অব্যাহত আছে। অতি দ্রুত তাকে গ্রেফতার করা সম্ভব হবে বলেও জানান তিনি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *