সাভারে অনুমোদনহীন মশার কয়েল তৈরীর কারখানায় র্য্যাবের অভিযান

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ গাছের গুড়ি, আঠা, রং ও ক্ষতিকর কেমিক্যাল মিশিয়ে ৩০ ধরনের মশার কয়েল তৈরীর একটি কারখানায় অভিযান চালিয়ে ১৯৩ কার্টুন কয়েল জব্দ, ৫০ হাজার পিচ নকল কয়েল ধ্বংস করে চারজনকে একমাস করে কারাদন্ড দিয়েছে র‌্যাবের ভ্রাম্যমান আদালত।

বুধবার (২ অক্টোবর) সাভার পৌর এলাকার দক্ষিন রাজাশনের ‘রোকসানা কেমিক্যাল ওয়ার্কস’ নামক কারখানায় এ অভিযান চালানো হয়।

অভিযান শেষে র‌্যাব-৪ এর নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট নিজাম উদ্দিন আহম্মেদ জানান, গাছের গুড়ি, আঠা ও রং মিশিয়ে তুলসী পাতা, জনতা, টাইগার, এসটিসি এন্টি ডেঙ্গু, সুপার কিং, ডলফিন, সুপার ফাইটার, নীম, ঈগলু ম্যাক্সসহ ৩০ ধরনের নকল মশার কয়েল তৈরী করে তা দীর্ঘদিন ধরে বাজারজাত করে আসছিল কারখানা মালিক আনিসুর রহমান। শুধুমাত্র একটি ট্রেড লাইসেন্স নিয়ে সংশ্লিষ্ট দপ্তরের অনুমোন না নিয়েই কারখানায় মানহীন মানব স্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকর কয়েল উৎপাদন করছিলো মালিক আনিস।

কারখানা থেকে জব্দ কয়েল তৈরীর ৪২বস্তা কাঁচামাল, ৫০হাজার পিচ তৈরী কয়েল ধ্বংস করা হয়েছে। এছাড়া আরও ১৯৩ কার্টুন বিভিন্ন নামের তৈরী কয়েল জব্দ করা হয়েছে।

কারখানার মালিক আনিস পলাতক থাকায় তার বিরুদ্ধে নিয়মিত মামলা রুজু করা হবে। এবং কারখানার ব্যবস্থাপক সাইফুল ইসলাম, বিক্রয় প্রতিনিধি মিজানুর রহমান, শেখ ফরিদ ও কর্মচারী মো: রুবেলকে এক মাস করে কারাদন্ড দেওয়া হয়েছে।

কারখানার শ্রমিক ইভা ও কহিনুর জানান, তাদের কারখানায় ১২জন শ্রমিক কাজ করে। মালিক মাঝে মধ্যে আসে। ম্যানেজার দেখাশুনা করে। তবে কারখানার অনুমোদন আছে কিনা তা তারা জানে না। প্রায় দুই বছর যাবত কারখানাটি পরিচালিত হচ্ছে।

বিএসটিআইএর পরিদর্শক শহিদুল ইসলাম জানান, বিএসটিআইএর অনুমোদন না নিয়েই শুধু ট্রেড লাইসেন্স দিয়ে ৩০ধরনের নকল কয়েল তৈরী করে বাজারজাত করে আসছিল কোম্পানিটি। কয়েল তৈরীতে যে ক্যামিক্যাল তারা ব্যবহার করছে তা স্বাস্থ্যের জন্য মারাত্মক ক্ষতিকর বলেও জানান তিনি।

অভিযানে র‌্যাব-৪ এর সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার সাজেদুল ইসলাম সজলসহ অন্যান্য র‌্যাব সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *