রাজধানীর গুলশানে ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে সন্ত্রাসীদের হামলা-লুটপাট : আহত ৮

নিজস্ব প্রতিবেদক: রাজধানীর গুলশানে প্রকাশ্য দিবালোকে একটি ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে হামলা চালিয়ে দুর্বৃত্তরা ব্যাপক ভাংচুর ও বেপরোয়া লুটপাটের ঘটনা ঘটিয়েছে। এসময় দুর্বৃত্তদের এলোপাতারী রামদা ও চাপাতির কোপে প্রতিষ্ঠানটির ম্যানেজারসহ অন্তত আট জন কর্মচারী গুরুতর আহত হয়েছে। তাদেরকে জরুরি ভিত্তিতে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার দুপুর সাড়ে ১২ টায় গুলশান ১৩৪ নম্বর রোডের ৪ নম্বর বাসায় ঘটনাটি ঘটে। ইমানয়েলস ব্যাংকুয়েট হল-১ নামের এ কনভেনশন সেন্টারে দুপুরে ৩০/৩৫ জন সন্ত্রাসী দেশীয় অস্ত্রশস্ত্রে সজ্জিত হয়ে অতর্কিত হামলা চালায় এবং রেপরোয়া ভাংচুর চালাতে থাকে। তারা ভবনটির নিচতলা ও দোতলার সকল গ্যাসের দেয়াল ও আসবাবপত্র ভেঙ্গে তছনছ করে এবং কনভেনশন সেন্টারের মালিক কাজী জাহাঙ্গীর হোসেনকে হত্যার উদ্দেশ্যে খোঁজাখুঁজি করতে থাকে। এসময় কনভেনশন সেন্টারের কর্মচারীদের এলোপাতারী পিটিয়ে ও কুপিয়ে গুরুতর জখম করে। তারা কাউন্টার বিভাগে হামলা চালিয়ে ড্রয়ার খেঙ্গে লক্ষাধিক টাকা লুটে নেয় বলেও অভিযোগ করা হয়েছে। ঘন্টা ব্যাপী তান্ডব চালালে হামলার ঘটনায় আশপাশে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে।

খবর পেয়ে গুলশান থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছাতেই আসামিরা দ্রæত পালিয়ে যায়। পরে পুলিশ এসে গুরুতর আহত অবস্থায় নিরাপত্তা কর্মি আমিনুল ইসলাম, সোহরাব, হেড বাবুর্চী নূরুল ইসলাম, ওয়েটার সাইফুল ইসলাম, অলি ইসলাম, রানা, ইউনুস, ম্যানেজার আমিরুল ইসলামসহ আট জনকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠায়।

ইমানয়েলস কনভেনশন সেন্টারের মালিক কাজী জাহাঙ্গীর হোসেন জানান, তার সাবেক ব্যবসায়িক অংশীদার ম্যানুয়েল গমেজের ভাড়াটে সন্ত্রাসী বাহিনী এ হামলা চালিয়েছে। তারা আমাকে হত্যা করে কনভেনশন সেন্টারটি দখল করে নিতে চায়। এ ব্যাপারে গুলশান থানায় ছাত্রলীগ নেতা রিফাত, ব্রাইন্ড রোজারিও, রিমনসহ ৩০/৩৫ জনকে আসামি করে গুলশান থানায় একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *