ফিফা বর্ষসেরা ফুটবলার লুকা মদ্রিচ

ডেস্ক রিপোর্টঃ ফিফা বর্ষসেরা ফুটবলারের পুরস্কারটা বেশ কয়েক বছর ধরেই শুধু হাতবদল হচ্ছিল ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো ও লিওনেল মেসির মধ্যে। অবশেষে এ বছর সেই চক্র ভাঙতে পেরেছেন লুকা মদ্রিচ। রিয়াল মাদ্রিদের হয়ে ও বিশ্বকাপে ক্রোয়েশিয়ার অধিনায়ক হিসেবে দুর্দান্ত নৈপুণ্য দেখিয়ে এ বছর তিনিই জিতেছেন ফিফা বর্ষসেরা ফুটবলারের পুরস্কার।

মদ্রিচের অধিনায়কত্বেই এ বছরের ফুটবল বিশ্বকাপের ফাইনালে খেলেছিল ক্রোয়েশিয়া। সেখানে ফ্রান্সের বিপক্ষে শিরোপা জয়ের অন্তিম লড়াইয়ে হারের মুখ দেখলেও মদ্রিচ জিতে নিয়েছিলেন বিশ্বকাপের সেরা ফুটবলারের পুরস্কার। একই সঙ্গে ক্লাব ফুটবলের অঙ্গনেও সফলতা পেয়েছেন মদ্রিচ। রিয়াল মাদ্রিদের চ্যাম্পিয়নস লিগ শিরোপা জয়ের পেছনেও অন্যতম প্রধান ভূমিকা ছিল এই ক্রোয়েশিয়ান মিডফিল্ডারের। পুরস্কারটা তাই নিজের একার বলে ভাবছেন না তিনি। ৩৩ বছর বয়সী এই ফুটবলার বলেছেন, ‘এই পুরস্কারটা আমার একার নয়। এটা আমার রিয়াল মাদ্রিদ ও ক্রোয়েশিয়ার সব সতীর্থের। আমার কোচদের। যাঁদের ছাড়া আমি এটা জিততে পারতাম না। আর আমার পরিবারকে ছাড়া আমি এই পর্যায়ে আসতেও পারতাম না।’

২০০৭ সালে ফিফার এই বর্ষসেরা ফুটবলারের পুরস্কারটা জিতেছিলেন ব্রাজিলের তারকা কাকা। তার পর থেকে এটি পেয়েছেন হয় রোনালদো, না হলে মেসি। এবার সেই চক্র ভেঙেছেন মদ্রিচ। এ বছরের সেরা ফুটবলারের তালিকায় দ্বিতীয় স্থানে দেখা গেছে রোনালদোর নাম। আর তৃতীয় স্থানে ছিলেন মিসরের তারকা মোহাম্মদ সালাহ।

অন্যদিকে নারী ফুটবলারদের মধ্যে বর্ষসেরা নির্বাচিত হয়েছেন ব্রাজিলের মার্তা। এ নিয়ে ষষ্ঠবারের মতো বর্ষসেরার পুরস্কার জিতেছেন এই ব্রাজিলিয়ান কিংবদন্তি। আর সেরা কোচ নির্বাচিত হয়েছেন ফ্রান্সের বিশ্বকাপজয়ী কোচ দিদিয়ের দেশম। বর্ষসেরা গোলরক্ষকের পুরস্কার উঠেছে বেলজিয়ামের থিবো কুর্তোয়ার হাতে।

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *