আশুলিয়ায় যুবদল থেকে যুবলীগ নেতা কবির সরকার এখন কোটি কোটি টাকার মালিক

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় আসার পর আন্দোলনের নামে সাভারের আশুলিয়ায় বিএনপি-জামায়াতের গাড়ি ভাংচুর ও নাশকতা করার ঘটনায় একাধিক মামলার আসামী কবির সরকার রাজনৈতিক প্রতিহিংসা থেকে নিজেকে বাঁচাতে যুবদল নেতা থেকে ক্ষমতাসীন দলের যুবলীগে যোগদান করেন। পরবর্তীতে আশুলিয়া থানা যুবলীগের আহবায়ক পদে পান। অত:পর মাত্র কয়েক বছরের ব্যবধানে কোটি কোটি টাকা ও অঢেল সম্পত্তির মালিক বনে যান।

আশুলিয়া যুবলীগের আহবায়ক পদ পেয়ে একছত্র রাজত্ব কায়েম করেন কবির সরকার। গড়ে তোলেন নিজস্ব ক্যাডার বাহিনী। আধিপত্য বিস্তার করেন আশুলিয়া শিল্পাঞ্চলের ঝুট ব্যবসা, জমি দখল ও চাঁদাবাজীসহ বিভিন্ন সন্ত্রাসী কর্মকান্ড। প্রতিমাসে হাতিয়ে নিচ্ছেন কোটি টাকা।

অভিযোগ আছে যুবলীগের শীর্ষ স্থানীয় নেতাকে মোটা অংকের টাকার বিনিময়ে আশুলিয়া যুবলীগের আহবায়ক পদ হাসিল করেন।

তিনি এখন দেড় কোটি টাকা মুল্যের প্রাডো গাড়ি ব্যবহার করেন। বাগানবাড়ী সহ কয়েকটি বাড়ী কিনেছেন। এর মধ্যে বাগবাড়ীতে প্রায় ৮-১০ কোটি টাকা খরচ করে একটি ডুপ্লেক্স বাড়ি তৈরি করছেন।

আশুলিয়া থানা যুবলীগের আহবায়ক হওয়ার পর জমি দখল, চাঁদাবাজীর অভিযোগে আশুলিয়া ও কাশিমপুর থানায় দায়ের হয়েছে ৪টি মামলা। এসব মামলায় তাকে অভিযুক্ত করে আদালতে প্রতিবেদন পাঠিয়েছে পুলিশ।

কবির হোসেন সরকারর বড় ভাই শওকত হোসেন সরকার গাজীপুর মহানগর বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক, অপর ভাই দবির উদ্দিন সরকার কাশিমপুর ইউনিয়ন স্বেচ্ছাসেবক দলের নেতা।

কবির হোসেন সরকারকে আশুলিয়া যুবলীগের আহবায়ক করার পর থেকে স্থানীয় নেতা-কর্মীর মধ্যে হতাশা ও ক্ষোভ সৃষ্টি হওয়ায় সাংগঠনিক কার্য্যক্রম ভেঙ্গে পড়েছে বলে মন্তব্য করেছেন একাধিক নেতাকর্মী।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *